মঙ্গলবার ১১ মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৮ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচন : কে এগিয়ে

অনলাইন ডেস্ক :   বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৬ 810 ভিউ
যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচন : কে এগিয়ে

আগামী ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। ৫০টি অঙ্গরাজ্যের ২০ কোটিরও বেশি ভোটার ওই দিন বেছে নেবেন বারাক ওবামার উত্তরসূরি ও দেশটির ৪৫তম প্রেসিডেন্ট। মার্কিন নির্বাচন নিয়ে সারা বিশ্বেই রয়েছে ব্যাপক উন্মাদনা। বর্তমান বিশ্বব্যবস্থার রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামরিক, ভৌগোলিকসহ প্রায় সব ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের অগ্রগণ্য ভূমিকাই এর মূল কারণ। একজন মার্কিন প্রেসিডেন্ট শুধু তার দেশেই নন, সারা বিশ্বের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। তাই কাগজে-কলমে একটি দেশের জাতীয় নির্বাচন হলেও এর সাথে জড়িয়ে আছে বিশ্বের অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্বার্থ।
সাধারণত যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় প্রধান দু’টি দল- রিপাবলিকান পার্টি ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থীদের মধ্যে। দীর্ঘ মনোনয়ন লড়াইয়ে গ্রান্ড ওল্ড পার্টি হিসেবে পরিচিত রিপাবলিকান ডেলিগেটরা তাদের প্রার্থী হিসেবে বেছে নেন ধনকুবের ও এক সময়ের টিভি উপস্থাপক ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। যদিও ট্রাম্পের মনোনয়ন লাভের প্রক্রিয়াটি সহজ ছিল না। শুরু থেকেই একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য সমলোচিত এ নেতাকে ঠেকাতে দলের মধ্যে অনেকেই সোচ্চার ছিলেন। বিভিন্ন জায়গায় তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে রিপাবলিকান ও সাধারণ আমেরিকানরা। বেশ কয়েকটি সমাবেশে গোলযোগ-সংঘর্ষ হয়েছে ট্রাম্পের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে। শিকাগোতে বিক্ষোভের মুখে ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি সমাবেশ বন্ধ করে দেয় পুলিশ। যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী ইতিহাসে যা বিরল। অনেক বর্ষীয়ান রিপালিকান নেতা ট্রাম্পের বিরোধিতা করে প্রকাশ্যে বক্তব্য দিতে থাকেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, নিউ ইয়র্ক টাইমস ও ওয়াশিংটন পোস্টের মতো বিখ্যাত সংবাদমাধ্যম ট্রাম্পের বিরোধিতা করে। যদিও শেষ পর্যন্ত তাকে থামানো যায়নি। দলীয় ডেলিগেটদের সমর্থনে তিনি পেছনে ফেলেছেন জেব বুশ, টেড ক্রুজ, মার্কো রুবিওসহ ১৬ জন মনোনয়নপ্রত্যাশীকে।
সে তুলনায় বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার দল ডেমোক্র্যাটিক পার্টিতে হিলারির মনোনয়নপ্রক্রিয়া অনেকটা সহজ ছিল। ২০০৮ সালে মনোনয়ন লড়াইয়ে ওবামার কাছে পরাজিত হওয়া সাবেক ফার্স্ট লেডি হিলারি ক্লিনটনকে এবার সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স ছাড়া অন্য মনোনয়নপ্রত্যাশীরা খুব একটা চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে পারেননি। সাবেক এ পরাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্যক্তিত্ব আর রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

Facebook Comments Box

Comments

comments

Posted ১০:১২ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৬

America News Agency (ANA) |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ

President/Editor-in-chief :

Sayeed-Ur-Rabb

 

Corporate Headquarter :

 44-70 21st.# 3O1, LIC. New York-11101. USA, Phone : +3476537971.

Dhaka Office :

70/B, Green Road, 1st Floor, Panthapath, Dhaka-1205, Phone : + 88-02-9665090.

E-mail : americanewsagency@gmail.com

Copyright © 2019-2021Inc. America News Agency (ANA), All rights reserved.ESTD-1997