সোমবার ৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২৫ চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সিঙ্গেল পারসনরা

যেভাবে কমাতে পারেন ট্যাক্স

এনা :   শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪ 12697
যেভাবে কমাতে পারেন ট্যাক্স

নিউইয়র্ক ব্যয়বহুল এক শহর। এখানে ব্যাচেলর পাস করার পর কেউ এক রুমের একটি বাসা নিয়ে থাকলেও তাকে বছরে ২০ থেকে ২৫ হাজার ডলার বাসা ভাড়া গুনতে হয়। এর বাইরে আছে বিভিন্ন বিল। তা ছাড়া রয়েছে খাওয়াদাওয়াসহ পারসোনাল নানা খরচ। যারা ম্যানহাটন কিংবা বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় থাকেন, সেখানে একটি স্টুডিও রুমের জন্য ভাড়া গুনতে হয় মাসে তিন থেকে চার হাজার ডলার। বছরে কেবল ভাড়া বাবদই আসে ৩৬ থেকে ৪৮ হাজার ডলার। এ কারণে যাবতীয় খরচ মিটিয়ে তেমন অর্থ হাতে থাকে না। তার ওপর প্রতিবছর পরিশোধ করতে হয় ট্যাক্স। জয়েন্ট ফ্যামিলির ক্ষেত্রে ট্যাক্সের অঙ্কটা সহনীয় হলেও সিঙ্গেল পারসনদের জন্য সেটা বিরাট বোঝাস্বরূপ। এই বোঝা কিছুটা কমাতে সিঙ্গেল পারসনরা বিভিন্ন উপায়ে কমাতে পারেন ট্যাক্সের অর্থ।

এ বিষয়ে জাকির সিপিএ, পিএলএলসি, সার্টিফায়েড পাবলিক অ্যাকাউন্ট্যান্সের সিইও ও প্রেসিডেন্ট সিপিএ জাকির চৌধুরী বলেন, ব্যাচেলর কিংবা মাস্টার্স সম্পন্ন করা কোনো সিঙ্গেল পারসন যদি বছরে এক লাখ ডলার ইনকাম করেন এবং তিনি যদি পরিবারের সঙ্গে থাকেন, তাহলে বেশি ট্যাক্স দিলেও তার তেমন খরচ না থাকায় ভালোই অর্থ জমাতে পারেন। তবে যারা বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতে পারেন না, নিজের সব খরচ নিজেকেই বহন করতে হয়, তারা তেমন অর্থ জমা করতে পারেন না। ফেডারেল, সিটি, স্টেট ট্যাক্স, সোশ্যাল সিকিউরিটি, মেডিকেয়ারসহ বিভিন্ন খাতে অর্থ দেওয়ার পর তেমন বেশি অর্থ তার ব্যাংক হিসাবে জমা হচ্ছে না। কিন্তু ওই সিঙ্গেল মানুষেরাও বিভিন্ন উপায়ে কিছু অর্থ সেভ করতে পারেন। কলেজ পাস করে কোনো সিঙ্গেল পারসন যখন চাকরিতে জয়েন করেন, তখন তার উচিত একজন সিপিএ, ট্যাক্স এক্সপার্ট বা বেনিফিট এক্সপার্টের সঙ্গে কথা বলে ট্যাক্স প্ল্যানিংয়ের বিষয়ে পরামর্শ নেওয়া। ট্যাক্স প্ল্যানিং করে তিনি তার আয়কর কমাতে পারেন। বড় বড় করপোরেট অফিসে বেনিফিট ডিপার্টমেন্ট রয়েছে, সেখানে কথা বলা যেতে পারে। এ ছাড়া আগের ট্যাক্স প্রিপেয়ারার বা সিপিএ থাকলে তার সঙ্গেও কথা বলতে পারেন। ট্যাক্স অ্যাটর্নির সঙ্গেও পরামর্শ করা যেতে পারে।

সিপিএ জাকির চৌধুরী আরও বলেন, কোনো সিঙ্গেল পারসন বছরে যদি এক লাখ ডলার আয় করেন, তাহলে তিনি ট্যাক্স কমানোর জন্য তার অফিসে থাকা ৪০১ (কে) রিটায়ারমেন্ট প্ল্যানে যে বছরের জন্য যত সর্বোচ্চ নির্ধারণ করে আইআরএস, সেটি তার বেন থেকে কেটে নেওয়ার জন্য অফিসে অনুমতি দিতে পারেন। ২০২৪ সালের জন্য এটি ২৩ হাজার ডলার করা হয়েছে। এটি দিলে তার ইনকাম থেকে ২৩ হাজারের মতো কমে যাবে। এটি আপাতত ট্যাক্স দিতে হবে না। ৬২ বছর পর অবসরে গেলে যখন তুলতে যাবেন, তখন ইনকাম অনুযায়ী ট্যাক্স আসবে। এখন তিনি যদি গড়ে ২২ শতাংশ কর দেন, তাহলে তখন তার এখনকার মতো আয় থাকবে না। তিনি ৬২ বছর বয়সে রিয়াটারমেন্টে গেলে ওই সময়ে সোশ্যাল সিকিউরিটি ও পেনশন থেকে যে অর্থ আয় করবেন এবং ৪০১ (কে) থেকে যে অর্থ ওঠাবেন, সব মিলিয়ে যত আয় হবে, ওই সময়ের স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন নেওয়ার পর বাকি যে অর্থ ইনকাম হিসেবে বিবেচিত হবে, সেটির জন্য তিনি আয়কর দেবেন। তাই তখন কম ট্যাক্স দিতে হবে। তখন সিঙ্গেল স্ট্যাটাস চেঞ্জ হয়ে ম্যারিড হলে স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন যেমন বাড়বে, তেমনি আয়ও কমবে।

তিনি বলেন, কেউ অ্যাডজাস্টেড গ্রস ইনকাম আরও কমাতে চাইলে তিনি আইআরএ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। আইআরএ অ্যাকাউন্টের নিয়ম হচ্ছে দুই ধরনের। একটি বিফোর ট্যাক্স, যেটি কোম্পানি সরাসরি ট্র্যাডিশনাল আইআরএ হিসাবে জমা করবে ট্যাক্স কাটার আগে। আরেকটি হচ্ছে রথ আইআরএ। রথ আইআরএ হচ্ছে আফটার ট্যাক্স। ট্যাক্স কাটার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ব্যাংকে গিয়ে রথ আইআরএ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। প্রতিবছর ট্যাক্স ফাইল করার সময় এপ্রিল মাসে শেষ হওয়ার আগে তাকে রথ আইআরএ হিসাবে অর্থ জমা দিতে হবে। ২০২৪ এর জন্য ৭ হাজার ডলার জমা দিতে পারবেন। ৪০১ (কে) ২৩ হাজার, আইআরএ ৭ হাজার মোট ৩০ হাজার ডলার পর্যন্ত ট্যাক্স ফাইল করার সময় ট্যাক্স দিতে হবে না। আইআরএ হিসাবে বিফোর ট্যাক্স জমা দিলে এখন ট্যাক্স দিতে হবে না। আর রথ আইআরএতে জমা দিলে যখন ৫৯ বছরের পর অর্থ তুলবেন, তখন তাকে মূল অর্থ বাদে কেবল আয়ের ওপর ১০ শতাংশের বেশি কর দিতে হবে না।

জাকির চৌধুরী বলেন, রিটায়ারমেন্ট প্ল্যানে ও আইআরএতে এক লাখ ডলার থেকে ৩০ হাজার বাদ দিলে অ্যাডজাস্টেড গ্রস ইনকাম হবে ৭০ হাজার। ৩ হাজার ২০০ ডলার ট্যাক্স ফ্রি হেলথ ইন্স্যুরেন্স খাতে জমা দেওয়া যাবে। এ ছাড়াও মেডিকেল খরচ দেখানো যাবে অ্যাডজাস্টেড গ্রস ইনকামের ১০ শতাংশ। ৭০ হাজারের ১০ শতাংশ ৭ হাজার। সিঙ্গেলরা ট্যাক্স ফাইলে সুবিধা নিতে পারবেন আউট অব পকেট মেডিকেল খরচ তিন হাজার। এ ছাড়া কারও গাড়ি থাকলে সে জন্য একটি নির্ধারিত অর্থ ট্যাক্স ফ্রি নিতে পারবেন, সেই সঙ্গে সাবওয়ের টিকিট, বাস টিকিট বিফোর ট্যাক্স জমা হওয়া অর্থে কিনতে পারবেন। বছরে ৩ হাজার ৭৮০ ডলার এই খাতে নিতে পারবেন করমুক্ত আয়। এ ছাড়া অফিসের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা রয়েছে, সেগুলোও হিসাব করে নিতে পারবেন। ট্যাক্স দিতে হবে না, এমন সব খাতে অর্থ অফিস কেটে নিয়ে স্ব স্ব হিসাবে পাঠাবে। এরপর বাকি অর্থ থেকে ফেডারেল, সিটি, স্টেট ট্যাক্স নির্ধারণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, মেডিকেল খরচ ছাড়াও সিটি, স্টেট ও প্রপার্টি ট্যাক্স কারও যদি ১০ হাজার ডলার হয়, তাহলে সেটিও তিনি আইটেমাইজ করে বাদ দিতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে ১০ হাজার ডলারের বেশি সুবিধা নিতে পারবেন না। কারও মর্টগেজ থাকলে সেখানে তিনি মর্টগেজের ইন্টারেস্টের অর্থ আইটেমাইজড ডিডাকশন করে বাদ দিতে পারবেন। আরও বাদ দিতে পারবেন নন-প্রফিট অর্গানাইজেশনে যদি কোনো অর্থ দেন, সেটি। তিনি তার অ্যাডজাস্টেড গ্রস ইনকামের ৫০ শতাংশ পর্যন্ত এ ক্ষেত্রে ডিডাকশন নিতে পারবেন। তিনি যে এই অর্থ দিয়েছেন, এর প্রমাণ অবশ্যই রাখতে হবে। কেউ যদি সিঙ্গেল ফ্যামিলি কিংবা অ্যাপার্টমেন্টে থাকেন, নিজের জন্য যে খরচ করেন, তা তিনি আইটেমাইজে ডিডাকশন নিতে পারবেন না। তবে তার নিজের থাকার জন্য বাসা-বাড়ি ছাড়া যদি কোনো ইনভেস্টমেন্ট প্রপার্টি থাকে, তাহলে তিনি সেখানে লোকসান হলে সেই লোকসান বছরে ২৫ হাজার ডলার পর্যন্ত আইটেমাইজ ডিডাকশন করে বাদ দিতে পারবেন। কেউ যদি দুই ফ্যামিলির বাড়ি কেনেন, তাহলে তিনি ওই বাড়িতে ভাড়া থেকে যে অর্থ আয় করছেন, সেখানে রেনোভেশনসহ বিভিন্ন খাতে খরচের জন্য ২৫ হাজার ডলার পর্যন্ত লোকসান হলে তা দেখাতে পারবেন। সব মিলিয়ে একজন মানুষ ট্যাক্স পরিকল্পনা করলে তাকে আর অত বেশি ট্যাক্স দিতে হয় না। ট্যাক্স অনেক কমে আসে।

সিপিএ জাকির চৌধুরী বলেন, যারা আইটেমাইজ করতে চান না, তারা স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন নেবেন। সিঙ্গেল হলে এর পরিমাণ ২০২৪-এ হবে ১৪ হাজার ৬০০ ডলার। যার জন্য যে স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন সুবিধা, তিনি সেটি নেবেন। যার আইটেমাইজ ডিডাকশন বেশি নয়, তিনি স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন নেবেন। তাই সিঙ্গেল পারসন যারা আছেন, তারা অবশ্যই ট্যাক্স পরিকল্পনা করবেন। পরিকল্পনা করে ট্যাক্স কমিয়ে আনা মানে প্রপারওয়েতে ট্যাক্স দেওয়া। অ্যাডজাস্টেড গ্রস ইনকাম কমলেও অনেকেই তার যে বিভিন্ন খরচ আছে, ট্যাক্স পরিকল্পনা করে তিনি কর মওকুফের সুবিধা পাচ্ছেন।

Facebook Comments Box

Comments

comments

Posted ৭:৫৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

America News Agency (ANA) |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আর্কাইভ

 

President/Editor-in-chief :

Sayeed-Ur-Rabb

 

Corporate Headquarter :

 44-70 21st.# 3O1, LIC. New York-11101. USA, Phone : +6463215067.

Dhaka Office :

70/B, Green Road, 1st Floor, Panthapath, Dhaka-1205, Phone : + 88-02-9665090.

E-mail : americanewsagency@gmail.com

Copyright © 2019-2024Inc. America News Agency (ANA), All rights reserved.ESTD-1997