শিরোনাম

প্রচ্ছদ যুক্তরাষ্ট্র, শিরোনাম

নিউইয়র্কে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেনকে গণসংবর্ধনা

এনা অনলাইন : | শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯ | সর্বাধিক পঠিত

নিউইয়র্কে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেনকে গণসংবর্ধনা

পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে পদোন্নতি পাওয়া যুক্তরাষ্ট্রে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত ও জাতিসংঘে স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেনকে সংবর্ধনা দিয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। রাষ্ট্রদূত মাসুদের স্থলে যোগ দিতে টোকিও থেকে আসছেন রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা। মাসুদের আগে এ দায়িত্ব পালন করেছিলেন বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।
শুক্রবার ঢাকার উদ্দেশ্যে জন এফ কেনেডি বিমানবন্দর ছাড়েন মাসুদ। ৪ বছর আগে টোকিও থেকে বদলি হয়ে নিউ ইয়র্কে এসেছিলেন তিনি।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে নিউ ইয়র্কের কুইন্সে একটি রেস্টুরেন্টের মিলনায়তনে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদের গণসংবর্ধনা সমাবেশের আয়োজন করে ‘বাংলাদেশি আমেরিকান কমিউনিটি’।



বক্তব্য দিচ্ছেন মাসুদ বিন মোমেনবক্তব্য দিচ্ছেন মাসুদ বিন মোমেনসোমা ফাহমিদাকে শুভেচ্ছা উপহার দিচ্ছেন মোর্শেদা জামানসোমা ফাহমিদাকে শুভেচ্ছা উপহার দিচ্ছেন মোর্শেদা জামানএতে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের প্রধান ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, সদস্য সচিব ইফজাল চৌধুরীর সমন্বয়ে সঞ্চালনা করেন মিসবাউজ্জামান। উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত মাসুদের স্ত্রী সোমা ফাহমিদা।
বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদ বলেন, “একাত্তরের ২৫ মার্চকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতির যে চেষ্টা জাতিসংঘে বিদ্যমান রয়েছে, তা আদায়ের জন্যে প্রবাসীদেরকে সোচ্চার থাকতে হবে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের আচরণের বিরুদ্ধেও আন্তর্জাতিক বন্ধুদের সরব রাখতে হবে। এজন্য মাঝেমধ্যেই সভা-সেমিনার-সিম্পোজিয়াম-কনসার্টের ব্যবস্থা করতে হবে।

“রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা কিছুটা হলেও ব্যাহত হচ্ছে। দিন যত বাড়বে সমস্যা আরো প্রকট হবে যা আশপাশের দেশকেও গ্রাস করবে। তাই এ সমস্যা যে শুধু বাংলাদেশের একার নয়, সেটি বুঝাতে হবে বিশ্ব সম্প্রদায়কে।”

সংবর্ধনা সমাবেশে জাকারিয়া চৌধুরীসংবর্ধনা সমাবেশে জাকারিয়া চৌধুরীমাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা ও কূটনীতিকরামাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা ও কূটনীতিকরাসমাবেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা, জহিরুল ইসলাম, শেলী এ মুবদি, ‘পিপল এন টেক’ এর প্রতিষ্ঠাতা কার্যনির্বাহী আবু হানিপ, খান্স টিউটোরিয়ালের চেয়ারপারসন নাঈমা খান, নিউ ইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, মোর্শেদা জামান, বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচনে সভাপতিপ্রার্থী কাজী নয়ন ও ফোবানার সাবেক সভাপতি বেদারুল ইসলাম বাবলা।স্বরচিত কবিতা পাঠ করেন রেজাউল করিম চৌধুরী।
অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন আব্দুল হাই জিয়া, শামসুল আলম চৌধুরী, আব্দুর রহিম বাদশা, মিসবাহ আহমেদ, আশরাফুজ্জামান, জাহাঙ্গির হোসেন, মোজাহিদুল ইসলাম, এম এ মুহিত, শাহীন আজমল, কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার নূরল হক, আহসান হাবিব, জামাল হোসেন, সাইফুল আলম সিদ্দিকী, স্বীকৃতি বড়য়া ও টমাস দুলু রায়।

এর আগে নিউ ইয়র্কে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদের নাগরিক সংবর্ধনা সমাবেশের আয়োজন করেছিল ‘যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম’ ও ‘যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন’।

Comments

comments



আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১