শিরোনাম

প্রচ্ছদ যুক্তরাষ্ট্র, শিরোনাম

নাসায় নিয়োগ পেলেন বাংলাদেশি মেয়ে মাহজাবীন হক

এনা অনলাইন : | মঙ্গলবার, ০১ অক্টোবর ২০১৯ | সর্বাধিক পঠিত

নাসায় নিয়োগ পেলেন বাংলাদেশি মেয়ে মাহজাবীন হক

সাফল্যের মুকুটে যুক্ত হলো আরও একটি নাম। তিনি হলেন সিলেটের মেয়ে মাহজাবীন হক। সেই সঙ্গে বংলাদেশকে নিয়ে গেলেন নতুন উচ্চতায়। আরও একবার বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরলেন লাল সবুজের বাংলাদেশের পতাকাকে। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন তিনি। মাহজাবীন হক এ বছরই মিশিগান রাজ্যের ওয়েইন স্টেইট ইউনির্ভাসিটি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন।

তার এমন সাফল্যে মিশিগানে বসবাসরত বাংলাদেশি কমিউনিটির লোকজন গর্ববোধ করছেন।পেইন্টিং ও ডিজাইনে পারদর্শী মাহজাবীন হক ২০০৯ সালে বাবা-মায়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন। দুই বছর নিউ ইয়র্ক সিটিতে ছিলেন তিনি। ২০১১ সাল থেকে স্থায়ীভাবে মিশিগানে বসবাস করছেন মাহজাবীন। তার সঙ্গে আছেন মা ফেরদৌসী চৌধুরী ও একমাত্র ভাই সৈয়দ সামিউল হক। তার ভাই বর্তমানে ইউএস আর্মিতে আছে। বাবা সৈয়দ এনামুল হক পূবালী ব্যাংক লিমিটেডের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার ছিলেন। তার বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার কদমরসুল গ্রামে।মাহজাবীন হক ওয়েইন স্টেইট ইউনির্ভাসিটি অধ্যয়নকালে দুই দফায় টেক্সাসের হিউস্টনে অবস্থিত নাসার জনসন স্পেস সেন্টারে ইন্টার্নশিপ করেছেন। প্রথম দফায় তিনি ডাটা অ্যানালিস্ট এবং দ্বিতীয় দফায় সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে মিশন কন্ট্রোলে কাজ করেন।



মাহজাবীন বলেন,  দুই দফায় ৮ মাস দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে কাজ করেন তিনি। এই কাজের মাধ্যমে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন। সেই সঙ্গে তিনি অর্পিত দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে পালনের চেষ্টা করেছেন বলে জানান। মাহজাবীন আরও বলেন, নাসা, অ্যামাজনসহ বিশ্বের অনেক খ্যাতনামা  কোম্পানি থেকে  চাকরির অফার পেয়েছেন তিনি। এর মধ্যে তিনি নাসাকেই বেছে নেন।

মাহজাবীন হক শুধু একজন সফল শিক্ষার্থীই নন, তিনি একজন ভালো সংগঠকও। ইউনির্ভাসিটিতে অধ্যয়নকালে ২০১৬ সালে সহপাঠী ও বাঙ্গালি শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠন করেন বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন (বিএসএ)। শুরুতে তিনি সংগঠনটির সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, পরের বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

Comments

comments



আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১